Home ওজন বাড়ানোর জন্য ওজন বাড়ানো এতো কঠিন কেন? মাসেল বিল্ডিং করার ৪টি নিয়ম।

ওজন বাড়ানো এতো কঠিন কেন? মাসেল বিল্ডিং করার ৪টি নিয়ম।

1

আপনি কি সেই ব্যক্তি, যিনি মাঠে অনেক পরিশ্রম করেন? আপনি কী খেলাধুলাতে হেরে যান? আপনি কী জিমে গিয়ে অনেক পরিশ্রম করেও কোন ফলাফল পাচ্ছেন না? আপনার একজন সাধারণ  হার্ড গেইনার হওয়ার সম্ভাবনা আছে। আপনি জেনেটিক ভাবে মেদহীন যার কারণে এমন হচ্ছে। চিন্তা করবেন না। ধৈর্য ধরুন, অধ্যাবসায় এবং নিয়ম মাফিক ট্রেনিং করুন তাহলে সফলতা পাবেন । ৬ মাসের ভারী হওয়ার একটি প্রোগ্রাম করুন।

রুল ১ঃ কিছু করুন অথবা বাড়ি যান

202542-go-hard-or-go-home-quote

নাম মাত্রই জিম করলে আপনি কখনই দ্রুত শরীর বাড়াতে পারবেন না। শরীর ভারী করার জন্য ব্যায়াম এবং নিয়ম মাফিক চলতে হবে। কারডিও ট্রেইনার এবং ফিটনেস লেখক জেরেমেও ডুভাল বলেন, “অনেকেই বিচ্ছিন্ন কিছু ব্যায়ামের পেছনে সময় ব্যায় করেন। “ আপনি আপনার প্রোগ্রাম অবহেলা করে শেষ করেন। ভারী ব্যায়ামগুলো আপনার মাসেলকে অধিক শক্তিশালী করবে। আপনার শরীর একটি ইউনিটের মতো কাজ করে। তাই বিচ্ছিন্ন ব্যায়াম না করে একটি নির্দিষ্ট নিয়মে ব্যায়াম করুন। কোন কাজ বা ব্যায়াম করার সময় মাসেল (বা জয়েন্ট) কাজ করে বা সচল থাকে।  ট্রেইনার, ফিটনেস রাইটার / মডেল পার্কার কোট “বিগ মুভিজ” এ বিশ্বাস করে। এটি মাসেল বৃদ্ধির একটি ভাল পন্থা।

রুল ২ঃ বিশ্রাম এবং ঘুম

sleeping-man-350আপনি যখন ভারী ব্যায়াম করেন তখন আপনার শরীর ক্লান্ত হয়ে পরে যা রিকভারি করতে বিশ্রামের প্রয়োজন। আপনার প্রোগ্রামিং শেষ করার এটি আরেকটি উপাদান। সুপারসেটস এবং মারকিট স্টাইলে টেকনিক ফ্যাট কমাতে অনেক ভাল কাজ করে। কিন্তু আপনি যখন চর্বিহীন মাসেল বাড়াতে চান তখন আপনার দীর্ঘ একটা বিশ্রামের প্রয়োজন। এক একটা সেট সম্পূর্ণ করে একটু বিশ্রাম নেয়া লাগবে (৩-৪মিনিট)।

রুল ৩ঃ ভালো করে ঘুমানো

সত্যিকারের উন্নতি জিম করার সময় না, বিশ্রামের সময় হয়। তার মানে জিম করতে যান, কঠোর পরিশ্রম করুন তারপর বিছানায় যান। এনিল বলেন, “ঘুমের পরিমাণ এবং ঠিক সময়ের উপর নির্ভর করে আপনি কতোটুকু টেসটোসটের উৎপাদন করছেন, আপনার মাসেল কেমন রিপেয়ার হচ্ছে এবং আপনার পাওনড কেমন বাড়ছে। হ্যাঁ, আমরা নিজেদের পুনরায় ফিরে পাই ঘুমাবার সময়। সেলিব্রেটি ট্রেইনার জেয় কারদিলো বলেন, “আমরা জিমের সময় আমাদের মাসেল নষ্ট করি এবং রাতে যখন ঘুমাই তখন মাসেল বিলড করি। তাই আপনি নিয়মিত ৮ ঘণ্টা করে ঘুমান।

রুল ৪ঃ পুষ্টিকর খাবার খান

dietician-nutrition-diet-therapy-nashville-tn-nutritional-counseling-weight-lossআপনি সাধারণত যে খাবার খান তার চেয়ে বেশি খাওয়ার পরিমাণ বাড়াতে হবে। এনিলও বলেছেন, “প্রতি ঘণ্টায় আপনার কিছুনা কিছু খেতে হবে, ক্যালোরিযুক্ত খাবারের পরিমাণ বাড়াতে হবে, “আপনার ওয়ারক আউট শেষে হেলদি খাবার খাওয়া কমাতে হবে।” আপনি সবসময়ের তুলনায় অধিক ক্যালোরি যুক্ত খাবার খান। পিনাট বাটার এবং এভোকেডো ফ্যাট এবং ক্যালোরি যোগাতে অধিক সাহায্য করে।

Nishi আমি ফিটনেস আর স্বাস্থ্যের ব্যাপারে সচেতন।

Comment(1)

LEAVE YOUR COMMENT

Your email address will not be published. Required fields are marked *